৪৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার ফোন আনছে ওয়ালটন

  কোন মন্তব্য নেই

স্মার্টফোনপ্রেমীদের জন্য নতুন চমক নিয়ে এলো বাংলাদেশি মাল্টিন্যাশনাল ব্র্যান্ড ওয়ালটন। এবার তারা বাজারে ছাড়ছে ৪৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার ফোন। বাংলাদেশে ওয়ালটনের নিজস্ব কারখানায় তৈরি দুর্দান্ত ফিচারসমৃদ্ধ নতুন ফ্ল্যাগশিপ ফোনটির মডেল ‘প্রিমো এসসেভেন প্রো’। ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ওয়ালটন প্যাভিলিয়নে ফোনটি দেখার সুযোগ রয়েছে।


ওয়ালটন সেল্যুলার ফোন বিক্রয় বিভাগের প্রধান আসিফুর রহমান খান বলেন, নতুন এই ফোনে ক্যামেরার পাশাপাশি হাই পারফরম্যান্সের প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। যার ফলে এতে শক্তিশালী প্রসেসর ও র‌্যাম, বেশি জায়গাযুক্ত রম এবং দ্রুত চার্জিংয়ের সুবিধা রাখা হয়েছে। ফোনটির ডিজাইন এবং ফিচার স্মার্টফোনপ্রেমীদের মন জয় করে নিতে সক্ষম হবে। তিনি জানান, ‘প্রিমো এসসেভেন প্রো’ ফোনটি আগামী ফেব্রুয়ারি মাসেই বাজারে আসবে। চলমান বাণিজ্য মেলায় ওয়ালটনের ২৯ নম্বর প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়নে এটি দেখার সুযোগ রাখা হয়েছে। এখনো ফোনটির দাম নির্ধারণ করা হয়নি। তবে ফ্ল্যাগশিপ ফোনটির দাম সবার ক্রয়ক্ষমতার মধ্যেই থাকবে বলে জানান তিনি। ৬.৩ ইঞ্চির ফুল এইচডি আইপিএস ডিসপ্লের ফোনটির পর্দার রেজ্যুলেশন ২৩৪০ বাই ১০৮০ পিক্সেল। এতে ব্যবহৃত হয়েছে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন হেলিও পি৭০ প্রসেসর। সঙ্গে রয়েছে দ্রুতগতির ৬ জিবি এলপিডিডিআর৪এক্স র‌্যাম। এর ইন্টারনাল স্টোরেজ ১২৮ জিবি। এটি ২৫৬ জিবি পর্যন্ত মাইক্রো এসডি কার্ড সাপোর্ট করবে। ফোনটির পেছনে রয়েছে পিডিএএফ প্রযুক্তির ৪৮, ৮ এবং ২ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা। যাতে রয়েছে ১০৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা পিক্সেল মোড। চমৎকার সেলফি তোলার জন্য এর সামনে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ফ্ল্যাগশিপ ফোনের পাওয়ার ব্যাকআপ একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এই ফোনে ব্যবহৃত হয়েছে ৩৯৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি। টাইপ সি পোর্টযুক্ত ফোনটিতে ১০ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিংসহ ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা রয়েছে। যার ফলে খুব অল্প সময়েই ফুল চার্জ দেয়া সম্ভব হবে। স্মার্টফোনটিতে ফেস আইডি, এআই রেকগনিশন, ফেস আনলক, ফিঙ্গারপ্রিন্টসহ আরো অসংখ্য অত্যাধুনিক ফিচার ও সুবিধা রয়েছে। উল্লেখ্য, বাণিজ্য মেলায় ভিন্ন ভিন্ন কনফিগারেশন ও দামের ওয়ালটন স্মার্টফোনে রয়েছে সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়। চাইলে ছাড়ের পরিবর্তে ওটিজি পেনড্রাইভ, মাইক্রোএসডি কার্ড কিংবা ওয়াই-ফাই রাউটার নেয়া যাবে। এছাড়া, ফিচার ফোনেও রয়েছে ডিসকাউন্ট পাওয়ার সুযোগ। সব মডেলের ওয়ালটন স্মার্টফোন এবং ফিচার ফোনে ১ বছরের ওয়ারেন্টি থাকছে। এছাড়াও, ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ ট্যাগযুক্ত ফোনে ৩০ দিনের ইনস্ট্যান্ট রিপ্লেমেন্টসহ ১০১ দিনের প্রায়োরিটি বিক্রয়োত্তর সেবা দিচ্ছে ওয়ালটন।

কোন মন্তব্য নেই :

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন