বেস্ট বাজেটে সেরা তিনটি ক্যামেরা স্মার্টফোন!


একটি এন্ড্রয়েড স্মার্টফোন কেনার ক্ষেত্রে,  বর্তমান সময়ে অনেকাংশ ক্রেতা মূল বিবেচনাতেই রাখেন সেই ফোনের ক্যামেরাটি কেমন, সেটি নিয়ে! ক্যামেরা হচ্ছে একটি আধুনিক স্মার্টফোনের অন্যতম চাহিদাসম্মত একটি ফিচার। আমাদের দেশের ব্যাপক স্মার্টফোন গ্রাহক বেইজের দিকে তাকালে দেখা যাবে, বেশির ভাগ মানুষই বাজেট স্মার্টফোন ক্রেতা। তো আজকের আর্টিকেলটি কিছুটা ভিন্নভাবে সাজানো, আমরা এই আর্টিকেলে আলোচনা করব বাজেট এর ভেতর ওয়ালটনের সেরা তিনটি ক্যামেরা স্মার্টফোন সম্পর্কে, যেগুলো আপনি কিনতে পারেন। আর এই স্মার্টফোনগুলো হচ্ছেঃ 
  • প্রিমো জিএইচ৯
  • প্রিমো এইচ৯
  • প্রিমো এইচএম৫

প্রিমো জিএইচ৯


দামঃ ৬৭৯৯ (২/১৬), ৭৭৯৯ (৩/৩২) টাকা 




একনজরে প্রিমো জিএইচ৯

  • ৩ জিবি র‍্যাম
  • ৩২ জিবি রম
  • ৪জি কানেক্টিভিটি
  • হেলিও এ২০ চিপসেট
  • এন্ড্রয়েড ১০
  • ৬.১ ইঞ্চি ১৯ঃ৯ রেসিও সমৃদ্ধ ইনসেল আইপিএস ডিসপ্লে
  • ডুয়াল ক্যামেরা মডিউল
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর
  • ৩০০০ এমএএইচ  ব্যাটারি
স্মার্টফোনটির রিয়ার প্যানেলে পাবেন একটি ডুয়াল ক্যামেরা মডিউল। ১৩ মেগাপিক্সেল মেইন সেন্সরের পাশাপাশি এতে পাওয়া যাবে একটি ০.৩ মেগাপিক্সেল সেকেন্ডারি সেন্সর। আর এই ০.৩ মেগাপিক্সেলের এই সেন্সরটি ডেপথ সেন্সিং এর কাজ করবে । f/1.8, f/2.0, f/2.2 ইত্যাদি নম্বর দিয়ে ক্যামেরার অ্যাপারচার প্রকাশ করা হয়ে থাকে। অ্যাপারচার এর মানে হচ্ছে লেন্সের ফোকাল লেন্থ। অ্যাপারচার নাম্বারে f ভগ্নাংশের পরে যে সংখ্যা থাকে সেটি যত ছোট হবে আপনার ক্যামেরার ওপেনিং ততই বড় হবে এবং ওপেনিং যত বড় হবে ক্যামেরা তত ভালো ভাবে লো লাইট ছবি উঠাতে পারবে। এবং যে শ্যালো ডেফত অফ ফিল্ড ইফেক্ট থাকে তাও ভালোভাবে দেখতে পাওয়া যাবে। শ্যালো ডেফথ অফ ফিল্ড ইফেক্ট মানে, আপনি দেখেছেন যে ছবি উঠানোর সময় আপনার সামনে থাকা সাবজেক্ট এর ছবি পরিষ্কার হয় এবং সাবজেক্ট এর পেছনে ঘোলা ইফেক্ট থাকে, তো আপনার ক্যামেরার অ্যাপারচার নাম্বার যতো কম হবে এই ইফেক্ট ততো ভালো দেখতে পাওয়া যাবে। 
 প্রিমো জিএইচ৯  এর সেকেন্ডারি রিয়ার ক্যামেরার অ্যাপারচার f/2.0, সুতরাং এর মাধ্যমে আপনি দারুন সব ছবি তুলতে পারবেন, যেখানে ছবির কোয়ালিটি যেমন সুন্দর থাকবে, তেমনি সাবজেক্টকে ফোকাসে রেখে ব্যাকগ্রাউন্ড ঘোলা করতেও সুবিধা হবে। প্রিমো জিএইচ৯  এর ফ্রন্ট প্যানেলের উপরে ইউ শেপড নচ এর ভেতর পাওয়া যাবে একটি ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সর। আর এই ক্যামেরাতে পাওয়া যাবে ফেস ডিটেকশন অটোফোকাস- পিডিএএফ প্রযুক্তি। স্মার্টফোনটির ফ্রন্ট ক্যামেরার অ্যাপারচার f/2.2।

দেখে আসতে পারেন স্মার্টফোনটির ফুল হ্যান্ডস অন রিভিউ। 

প্রিমো এইচ৯


দামঃ ৭৩৯৯ টাকা (শীতকালীন মূল্যহ্রাস)  



একনজরে প্রিমো এইচ৯

  • ১৯ঃ৯ রেশিও, ৬.১ ইঞ্চি ইউ-নচ সমৃদ্ধ ডিসপ্লে
  • ১.৬ গিগাহার্জ অক্টাকোর প্রসেসর
  • PowerVR Rouge GE8322 জিপিইউ
  • ৩ জিবি ডিডিআর৪ র‍্যাম এবং ৩২ জিবি রম, ১২৮ জিবি পর্যন্ত এসডি কার্ড সাপোর্ট
  • ১৩ মেগাপিক্সেল এবং ২ মেগাপিক্সেল সেন্সর নিয়ে ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা মডিউল
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ৩৫০০ এমএএইচ লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি
  • ৭৮৯৯ টাকা
রিয়ার প্যানেলে পাবেন ডুয়াল ক্যামেরা সেটাপ। যার একটি প্রাইমারি সেন্সর ১৩ মেগাপিক্সেল এবং সেকেন্ডারিটা ২ মেগাপিক্সেল সেন্সর। প্রাইমারি ক্যামেরাটির এপারচার এফ ২.০। আর ২ মেগাপিক্সেলে এর সেকেন্ডারি ক্যামেরাটি ডেপথ সেন্সিং এর কাজ করবে। আর সাথে একটি ফ্ল্যাশ তো থাকছেই। ক্যামেরা ইউআই চিরাচলিত এন্ড্রয়েন্ড স্টক ইন্টারফেস এর মতই। নরমাল, পোর্টরেইট, কিউট, বিউটি, কিউআর কোড স্ক্যানার এর মত শুটিং মোডগুলো পেয়ে যাবেন। আর বিএসআই সেন্সর হওয়ার ফলে লোলাইট ছবিগুলো হবে অনেক ভালো। এই ফোনের ক্যামেরাটি খুবই শার্প এবং কালারফুল ছবি তুলতে পারে আর ছবির ডিটেইলসকে’ও খারাপ বলা যায় না। 

 প্রিমো এইচ৯ এর ফ্রন্ট প্যানেলে নচ বারের ভেতর পেয়ে যাবেন এর ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। ফেস ডিটেকশন মোড এর পাশাপাশি নরমাল, কিউট, বিউটি, কিউআর কোড স্ক্যানার এর মত শুটিং মোডগুলোও পেয়ে যাবেন। আর সেলফি প্রেমিদের এই ক্যামেরা পছন্দ হবে নিঃসন্দেহে! সঠিক আলোতে ক্যামেরাটি আপনাকে বেশ দারুন সব ছবি এবং ভিডিও উপহার দেবে। ফ্রন্ট ক্যামেরা দিয়ে ১০৮০ পিক্সেল পর্যন্ত রেজুলেসনে ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন।

দেখে আসতে পারেন স্মার্টফোনটির ফুল হ্যান্ডস অন রিভিউ। 

প্রিমো এইচএম৫


দামঃ ৮৫৯৯ (৩/৩২), ৯৪৯৯ (৪/৬৪) টাকা  



একনজরে প্রিমো এইচএম৫

  • ৬.১ ইঞ্চি আইপিএস প্যানেল ডিসপ্লে
  • ৪ জিবি র‍্যাম, ৬৪ জিবি রম
  • ১৩ মেগাপিক্সেলের সনি প্রাইমারি সেন্সর সহ ডুয়াল ক্যামেরা সেটাপ
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট সেলফি ক্যামেরা
  • মিডিয়াটেক হেলিও এ২০ চিপসেট
ফোনটিতে প্রাইমারি সেন্সর হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে সনির ১৩ মেগাপিক্সেল সেন্সর। স্মার্টফোনটির ক্যামেরা অনেক মিড বাজেট শক্তিশালী স্মার্টফোনের ক্যামেরার সাথেও টেক্কা দিতে সক্ষম। কালার, শার্পনেস, ডিটেইলস দাম হিসেবে দারুন। তবে আলো কমে গেলে এর পারফর্মেন্স একটু কমে আসতে শুরু করে এবং ছবিতে হালকা নয়েস চলে আসে, তবে স্বাভাবিক আলোতে স্মার্টফোনটি দিয়ে দারুন সব ছবি ধারন করা যায়। আর এই ক্যামেরা দিয়ে ১০৮০ পিক্সেল রেজুলেসনে ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন। আর ক্যামেরার দিক দিয়ে এই বাজেট সেকশনে সবচেয়ে সেরা স্মার্টফোন ক্যামেরার কথা বলা হলে সেখানে প্রিমো এইচএম৫ থাকবে। 

স্মার্টফোনটির ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরাও সেলফি লাভারদের নিরাশ করবে না। আর ফ্রন্ট সেলফি ক্যামেরা দিয়ে তোলা ছবি ফোন কোন রিটাচ করবে না, একদম Raw ছবিটিই উঠবে। আর স্টেবলভাবে ফোনটির ফ্রন্ট ক্যামেরা দিয়ে ছবি তুললে আপনি খুব ভালো শার্পনেস যুক্ত ছবি ধারন করতে সক্ষম হবেন।

দেখে আসতে পারেন স্মার্টফোনটির ফুল হ্যান্ডস অন রিভিউ। 

এইছিল আজকের আলোচ্য বাজেট রেঞ্জে সেরা ক্যামেরার তিনটি স্মার্টফোন। দারুন এই তিনটি স্মার্টফোন দেখতে ঘুরে আসতে পারেন, আপনার পাশের যেকোনো ওয়ালটন প্লাজা থেকে।